Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
আমরা যেভাবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের স্টোরেজ বাঁচাবো

আমরা যেভাবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের স্টোরেজ বাঁচাবো

আমরা যেভাবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের স্টোরেজ বাঁচাবো

আমরা সব সময় সবাই প্রায় এন্ড্রয়েড ফোনের স্টোরেজ নিয়ে কমবেশি চিন্তায় থাকি। কারণ আমাদের ব্যবহৃত বেশিরভাগ ফোনের স্টোরেজ আমাদের প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম থাকে যার ফলে আমরা অনেক সমস্যা বোধ করি। কিন্তু কিভাবে এই আমাদের ফোনের ইন্টারনাল মেমোরি (ROM) স্টোরিজ সেভ করতে পারবো সে বিষয় নিয়ে আপনাদের কে ছোট কিছু নিয়ম শিখিয়ে দেবো আশা করি আপনাদের অনেক উপকারে আসবে । নিছে কিছু নিয়ম নিয়ে আলোচনা করা  হল ।

ক্যাশ ও ডাটা ক্লিয়ার:

আমরা অ্যান্ড্রয়েড ফোন ইউজ করি এন্ড্রয়েড ফোনের যে অ্যাপ গুলো আছে সেগুলো ব্যবহারের ফলে অনেক ক্যাশ ও ডাটা জমা করে ফেলে যার ফলে আমাদের ফোনটি আগের তুলনায় অনেক ধীরে কাজ করে যা আমাদের অনেক সমস্যা করে তাই আমরা একটা কাজ করতে পারি কি আমাদের ব্যবহৃত অ্যাপ গুলোর ডাটা ও ক্যাশ ডিলিট করে দিতে পারি। এর জন্য আমাদের কি করতে হবে প্রথমে ফোনের অ্যাপ ম্যানেজমেন্টে যাব। তারপর অ্যাপ গুলো সিলেক্ট করব এবং সেগুলোর ক্যাশ ও ডাটা ডিলিট করে দেব এতে আমাদের ফোনটা অনেক হালকা হবে কাজ করার দিক দিয়ে এর মানে এই না ফোনটা ওজনে হালকা হয়ে যাবে।

আমরা যেভাবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের স্টোরেজ বাঁচাবো

পুরাতন ডাউনলোড ডিলিট:

আমরা সবাই প্রায় গান কেউবা মুভি কেউবা অ্যাপ ডাউনলোড করে থাকি কিন্তু আমরা সবাই প্রায় এই ডাউনলোডকৃত পুরাতন গান মুভি অ্যাপ পরবর্তীতে ডিলিট করি না বা ডিলিট করতে ভুলে যায় ।এর ফলে কি হয় আমাদের মনের অজান্তেই ওই পুরাতন ফাইলগুলো জায়গা দখল করে বসে থাকে ।যার ফলে আমাদের স্টোরিজ কমে যায়। তখন অনেকেই আমরা একটু আশ্চর্য হয়ে যায় যে আমাদের ফোনের স্টোরেজ তো ধরে নিলাম 8 জিবি কিন্তু আমি তো আমার ফোন মেমোরিতে কিছুই রাখিনি এত জায়গা ভরে আছো কেন।

আমরা অনেকেই বুঝতে পারিনা কিভাবে জায়গা গুলো ভরে গেল। এই জায়গা গুলো ভরে যাওয়ার কারণ হচ্ছে আমাদের ব্যবহৃত অ্যাপ এর ক্যাশ ডাটা জমা হয় সেগুলো আমরা ডিলিট করি না আবার কোন কিছু ডাউনলোড করলে সেগুলো ডিলিট করে দেই না। তাই আমরা একদিন সময় করে ডাউনলোড ফাইল এ ঢুকে সব পুরাতন ডাউনলোড গুলো ডিলিট করে দিই তাহলে দেখব ফোনের স্টোরেজ অনেকটা ফাঁকা হয়ে গেছে আর আমরাও ফোনটা ব্যবহার করে আগের তুলনায় অনেক সুবিধা বোধ করছি।

আমার সবাই তাড়াহুড়ো করে কাজ করতে পছন্দ করি দেড়ী কারো পছন্দ না আমাদের এই তাড়াহুড়ার মুহূর্তে ফোনের কোন কাজ হয় যদি তখন যদি আমাদের ব্যবহৃত ফোনটি অনেক ধীরে কাজ করে আমাদের কারো কাছে কিন্তু সেটা ভালো লাগবে না এতে আমার অনেক সমস্যা বোধ করব। তাই আমি যেগুলো বললাম এগুলা নিয়ম মাফিক কাজ করে দেখতে পারেন। আপনাদের ফোনটা নিশ্চয়ই অনেক ভালো পারফর্মেন্স দেবে।

আমরা যেভাবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের স্টোরেজ বাঁচাবো

এসডি কার্ডে অ্যাপ ইনস্টল:

আমরা অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারী সবাই জানি আমাদের কিছু প্রয়োজনীয় অ্যাপ আমাদের ফোনে ইন্সটল করতে হয়। আর এই ইনস্টল করা আমরা সবাই কম-বেশি করতে পারি। আমরা যখন একটা ফোনে ইন্সটল করি তখন এটি সব ফোনেই ইন্টার্নাল স্টরে জায়গা দখল করে । এতে ফোনের স্পিড টা তুলনামূলক অনেক কমে যায়। এর ফলে স্মার্টফোনের ও এস এর ওপর ও চাপ পরে। আমরা শুধু শুধু কেন আমাদের ফোনের ও এস এর ওপর এত চাপ দেব। আমরা কিছু অ্যাপ চাইলেই মাইক্রো এসডি কার্ড এ পাঠিয়ে দিতে পারি। এতে জায়গাও বাজবে আমাদের ফোনে কাজ করে তুলনামূলক অনেক ভালো বোধ করবো আমরা। আমাদের সময় বেঁচে যাবে এবং প্রতিটা কাজের ভালো পারফরমেন্স পাবো আমরা

লাইট অ্যাপ ব্যবহার করুন:

আমরা স্মার্টফোনে আমাদের প্রয়োজনীয় বেশিভাগ অ্যাপ ডাউনলোড করে ইন্সটল করে ব্যবহার করি। এর মাঝে বেশিরভাগ অ্যাপ ই অনেক বড় যার ফলে অনেক জায়গা দখল করে আমাদের ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ কমিয়ে দেয়। যার জন্য আমাদের ফোনটা অনেক স্লো কাজ করে অনেক ভারী ভারী বোধ হয় কাজের ক্ষেত্রে। কিন্তু এর একটি সমাধান করতে পারি আমরা ইন্টারনেটে আমাদের ব্যবহৃত বেশিরভাগ অ্যাপ গুলোর একের অধিক ভার্সনে পাওয়া যায় তার মাঝে লাইট ভার্সন একটি। এগুলো আমাদের ব্যবহৃত ওইসব অ্যাপ এর তুলনায় শুধুমাত্র কম জায়গা দখল করে কিন্তু আমরা ঐসব অ্যাপের মতোই এই অ্যাপ গুলোতেও সব রকম সুবিধা ভোগ করতে পারি। এই অ্যাপ গুলো আমাদের আগের ব্যবহৃত অ্যাপ গুলোর তুলনায় কম জায়গা দখল করার ফলে আমাদের ইন্টারনাল স্টোরেজ অনেকটা বেড়ে যায়। যার ফলে অ্যাপগুলো ব্যবহার করেও আমরা সুবিধা পায় এবং আমাদের ফোনটি আগের তুলনায় অনেক ফ্রি থাকবে এবং আমরা অনেক দ্রুত কাজ করতে পারবো।

উপসংহার: সবগুলোই আপনাদের বললাম অবশেষে আপনাদের একটা কথাই বলবো আপনাদের ব্যবহৃত স্মার্টফোনটি একটু কেয়ারফুলি ব্যবহার করবেন। আর ব্যবহার শেষে ব্যবহৃত অ্যাপ গুলোর ক্যাশ গুলো অবশ্যই ডিলিট করবেন। আর পুরাতন ডাউনলোডকৃত মুভি ,গান ,অ্যাপ সব ডিলিট করে দিবেন এতে নানা রকম টেকনিক্যাল সমস্যা থেকে আপনাদের ফোনটি অনেক সুরক্ষিত থাকবে এবং আপনারা ব্যবহার করে ফোনটি অনেক মজা পাবেন

আমাদের পোস্টটি আপনাদের কেমন লাগছে। কমেন্ট বক্সে অবশ্যই জানাবেন আর নতুন কিছু ইনফরমেশন পাওয়ার জন্য নিয়মিত আমাদের সাইটটি ভিজিট করুন। এবং আপনাদের বন্ধুদেরকেও জানার উৎসাহ জানান সাইটটি সম্পর্কে।

মোবাইল ফোন বিষয়ে আর বিস্তারিত যানার জন্য আইখানে ক্লিক করুন  এবং আমাদের ফেসবুক পেজ থেকে ঘুরে আসতে পারেন ক্লিক করুন

Related Mobile Phone

One response to “আমরা যেভাবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের স্টোরেজ বাঁচাবো”

  1. Sajal Ahmed says:

    Nice post. পোস্টা পড়ে অনেক ভালো লাগলো কিন্তু আরও কিছু বিষয় বাদ পরে গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *